প্রয়াত পটুয়া কামরুল হাসান একজন শিল্পী ছিলেন আপাদমস্তক. যা ভেবেছেন সত্য সুন্দর ন্যায়, তার জন্য লড়াই করে গিয়েছেন আজীবন . তবে ‘ একজন দূরদৃষ্টি সম্পন্ন রাজনৈতিক ভাষ্যকার’ এভাবে তাকে কখনো ভাবা হয়নি. আমার জানা মতে. এরশাদ বিরোধী গণআন্দোলনের মাঝ পর্যায়ে এসে পটুয়া কামরুল আঁকেন বিশ্ববেহায়ার বিখ্যাত ছবি . 

কামরুল যা বুঝেছিলেন আশির দশকে, আমরা তা আজও সত্য বলে টের পাচ্ছি সিকি শতাব্দী পরে এসেও. পতিত স্বৈরাচারী এরশাদ গতকাল এক অনুষ্ঠানে দশ ই নভেম্বর কে গণতন্ত্র দিবস বলে দাবি করেছেন এবং বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার সব কৃতিত্ব দাবি করেছেন. সবচেয়ে ঘৃণ্য ক্রূর পশুর ও এর চেয়ে বেশী চক্ষুলজ্জা থাকে.

Yesterday was 23rd anniversary of the killing of Shahid Nur Hossain. Shahid Nur Hossain was in a political rally staged at Dhaka’s zero point to demand resignation of the illegal autocrat. Ershad’s police took aim at Nur Hossain, shot and killed him. Nut Hossain was easy target as his chest and back was marked with graffiti demanding fall of the autocrat and  rise of democracy ( গণতন্ত্র মুক্তি পাক, স্বৈরাচার নিপাত যাক).
Here is how celebrated photojournalist Pavel Rahman describes the event.